ওয়ার্ডপ্রেস কি?

ওয়ার্ডপ্রেস কি: আপনি কি ব্লগিং করেন বা আপনি আপনার নিজস্ব একটি ব্লগ ওয়েবসাইট বানাতে চান তাহলে আপনি ওয়ার্ডপ্রেস এর নাম শুনে থাকবেন বেশিরভাগ মানুষ সর্বপ্রথম তাদের ব্লগ ব্লগারে বানান কারণ এটি একদম ফ্রি কিন্তু সেখানে অনেক limitation আছে এইজন্য মানুষেরা ব্লগার ছেড়ে ওয়ার্ডপ্রেসে shift হয়ে যান এখানে আপনি অনেক সুবিধা পাবেন যেগুলোর ব্যবহার করে আপনি আপনার ওয়েবসাইটকে একটি প্রফেশনাল লুক দিতে পারবেন আরে টির জন্য আপনার কোন ধরনের  কোডিং knowledge এর প্রয়োজন পড়বে না তাই আজ আমরা কথা বলবো ওয়াডপ্রেস কি

এটির জনপ্রিয়তা আপনি এই কথাটি থেকে বুঝে যাবেন যে পৃথিবীতে যত ব্লগ বা ওয়েবসাইট আছে তাদের মধ্যে 30% এর বেশি ওয়েবসাইট ওয়ার্ডপ্রেসে বানানো হয়েছে ওয়ার্ডপ্রেস আপনার জন্য অনেক বেশি flexible যার ফলে এখানে ওয়েবসাইট বানালে আপনাকে কোন ধরনের সমস্যার সম্মুখীন হতে হবে না আর আপনি আপনার মত করে আপনার কনটেন্ট কে ম্যানেজ করতে পারবেন

সর্বপ্রথম একটি প্রফেশনাল ওয়েবসাইট বানানোর জন্য আপনাকে ওয়েব ডিজাইনিং জানতে হবে এটি শেখার জন্য অনেক বেশি সময় লাগে কিন্তু এখন আপনি ওয়াডপ্রেস এর দশ মিনিটের মধ্যে আপনার একটি ওয়েব সাইট বানাতে পারবেন কারণ ওয়ার্ডপ্রেস পৃথিবীর মধ্যে সবথেকে বড় Content Management System(CMS) আপনি গুগলের যত ওয়েবসাইট দেখেন তাদের মধ্যে বেশিরভাগ ওয়ার্ডপ্রেস এর সাহায্য নিয়ে বানানো হয়েছে

 

ওয়ার্ডপ্রেস কি?

ওয়ার্ডপ্রেস কি

ওয়ার্ডপ্রেস একটি ওপেন সোর্স প্ল্যাটফর্ম এটির সাহায্যে আপনি আপনার ওয়েবসাইটকে কিছু মিনিটের মধ্যেই কোন প্রোগ্রামিং knowledge ছাড়াই বানাতে পারবেন সেটিকে আপনি আপনার মত করে কাস্টমাইজ করতে পারবেন আপনি যেমন চাইবেন তেমন আপনার ব্লগকে ডিজাইন করতে পারবেন এখানে আপনি পুরো কন্ট্রোল পাবেন ওয়ার্ডপ্রেস একটি কনটেন্ট ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম এটির কাজ হল আপনি এদিকে ব্যবহার করে আপনার কনটেন্ট কে আপনার মত করে ম্যানেজ করতে পারবেন তাও আবার খুব সহজেই

ওয়াডপ্রেস কে মুখ্য রূপে PHP আর MySql এর লেখা হয়েছে আর এটির সর্বপ্রথম ভার্শন 2003 সালে এসেছিল আর এটিকে Matt Mullenweg আর Mike Little মিলে বানিয়েছিলেন এই প্ল্যাটফর্ম এই জন্য বানানো হয়েছিল যাতে যদি কেউ তার নিজস্ব সাধারণ ব্লগ বানিয়ে ইন্টারনেটের ওপর host করতে চাই তারা এই প্লাটফর্মে সাহায্যে সেটি করতে পারবে আজকের সময়ে এর ক্রিয়েটর জানেন না যে এই প্ল্যাটফর্ম টি এত বেশি জনপ্রিয় হয়ে যাবে

মানুষের ইন্টারেস্ট বাড়ার কারণে আর ওপেনসোর্স হওয়ার কারণে মানুষেরা তাদের মত করে যারা প্রোগ্রামিং জানতেন তারা এখানে নতুন functionality জুড়ে গেছেন আর আজকের সময়ে আপনার যে ধরনের ওয়েবসাইট বাড়ানোর জন্য হাজারো ফানসান পেয়ে যাবেন আপনি যেমন চাইবে তেমন ওয়েবসাইট এখানে বানাতে পারবেন

Note: আপনাকে এটি অবশ্যই খেয়াল রাখতে হবে যে যখন আপনি গুগল বা অন্য কোন সার্চ ইঞ্জিনে ওয়ার্ডপ্রেস সার্চ করবেন তখন আপনি সেখানে দুই ধরনের ওয়ার্ডপ্রেস দেখতে পাবেন আর এই দুটির মধ্যে কিছুটা পার্থক্য রয়েছে আপনি WordPress.com আর WordPress.orgএই দুটো দেখতে পাবেন তা আগে এগুলোর সম্বন্ধে বুঝে নেওয়া আমাদের জন্য অত্যন্ত আবশ্যক

 

WordPress.org vs WordPress.com

এই দুটোর মধ্যে সবথেকে বড় পার্থক্য হলো এদের হোস্টিং আর domain কে নিয়ে আয় এই দুটোর কাজ একে অপরের থেকে কিছুটা আলাদা

WordPress.org

এটি একটি ওপেনসোর্স সফটওয়্যার অর্থাৎ আপনি এটিকে ফ্রিতে ব্যবহার করতে পারবেন কিন্তু যদি আপনি আপনার ওয়েবসাইট বা ব্লগ WordPress.org বানাতে চান তাহলে এর জন্য আপনাকে কিছু টাকা হোস্টিং আর domain name কেনার জন্য খরচ করতে হবে কিন্তু এটির অনেক সুবিধা রয়েছে আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইটের ওপর আপনার পুরো কন্ট্রোল থাকবে কারণ আপনি ওয়াডপ্রেস কে আপনার নিজস্ব হোস্টিং এ ইনস্টল করে রেখেছেন

WordPress.com

এখানে ওয়েবসাইট বানানো খুবই সহজ যেমন আপনি আপনার অ্যাকাউন্ট জিমেইল বা ফেসবুকে বানিয়ে রেখেছেন ঠিক সেইভাবে আপনাকে এখানে বানাতে হবে এটিকে ব্যবহার করার জন্য আপনাকে কোন হোস্টিং বা domain name কেনার কোন প্রয়োজন নেই এগুলো সব কিছুই আপনি ফ্রিতে পেয়ে যাবেন কিন্তু এখানে কিছু অসুবিধা রয়েছে এখানে আপনি আপনার ওয়েবসাইটের পুরো কন্ট্রোল পাবেন না আর আপনার ওয়েবসাইটের নামের শেষে wordpress.com লাগানো থাকবে

যেমন yoursite.wordpress.com আর আপনার ওয়েবসাইটে ওয়ার্ডপ্রেসের অ্যাড লাগানো থাকবে এখানে আপনার কোনো কন্ট্রোল থাকবে না আর সাথে আপনি স্টোরেজঃ কম পাবেন এই জন্য এটি জানা খুবই জরুরী ওয়ার্ডপ্রেস কি

ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইট এর প্রয়োজনীয়তা

যদি আপনি একটি ওয়েবসাইট বানানোর কথা ভাবছেন তাহলে আপনাকে এই সমস্ত terms এর সম্বন্ধে জেনে রাখা উচিত যেগুলো একটি ওয়েবসাইট বানানোর ক্ষেত্রে ব্যবহার হয় এগুলো ছাড়া একটি প্রফেশনাল ওয়েবসাইট এর সম্বন্ধে ভাবতেও পারবেন না

 

Web Hosting

ওয়েব হোস্টিং একটি সার্ভিস যেদিকে ছাড়া আপনি আপনার ওয়েবসাইটকে ইন্টারনেটের উপর show করাতে পারবেন না যদিও বিভিন্ন ধরনের ওয়েব হোস্টিং প্রোভাইডার আছে যেখান থেকে আপনি আপনার জন্য হোস্টিং কিনতে পারেন হোস্টিং কোম্পানি আপনাকে একটি IP দেয় এর সাথে আপনাকে আপনার plan হিসাবে স্টোরেজ দেওয়া হয় কিন্তু যদি আপনি নতুন ব্লগিং শুরু করে থাকেন তাহলে আমি আপনাদের সাজেস্ট করবো শুরুর দিকে আপনারা দামি হোস্টিং নেবেন না

Domain Name

Domain name এর সহজ অর্থ হলো আপনার ওয়েবসাইটের নাম যার সাহায্যে আপনার ওয়েবসাইটকে মানুষ জানতে পারে যখন কেউ ইন্টারনেটে আপনার ওয়েবসাইট কে সার্চ করে তখন যেটি দেখা যায় সেগুলো হলো domain name এর letters আর নম্বরের কম্বিনেশন যেমন আমার ওয়েবসাইটের এড্রেস hindibloggingideas.in আপনি আপনার ওয়েবসাইটের জন্য ডোমিন Godaddy, Bigrock এর মতো ওয়েবসাইট থেকে কিনতে পারেন

WordPress Theme

থিম হলো আপনার ওয়েবসাইটের face যখন আপনি কোন ওয়েবসাইটে যান তখন প্রত্যেক ওয়েবসাইটের নিজস্ব একটি আলাদা look থাকে আরেকটি ওয়েবসাইটের থিম থেকে decide করা হয় এর জন্য আপনি চাইলে কোন ভাল থিম কিনতে পারেন বা আপনি ফ্রি থিম ব্যবহার করতে পারেন ওয়ার্ডপ্রেসে আপনি হাজারো থিম পেয়ে যাবেন যেগুলো আপনি আপনার মত করে কাস্টমাইজ করতে পারবেন আর যে থিমটি আপনার ভালো লাগে সেটিকে ব্যবহার করতে পারবেন

Plugins

ওয়ার্ডপ্রেস প্লাগিন আপনার ওয়েবসাইটের functionalityকে বাড়াতে কাজ করে এগুলো ছাড়া ওয়েবসাইটকে ম্যানেজ করা খুবই কঠিন হয়ে যায় ওয়ার্ডপ্রেসে আপনি প্রত্যেক কাজের জন্য প্লাগিন পেয়ে যাবেন যার সাহায্যে আপনি আপনার ওয়েবসাইটে এক্সট্রা feature জুড়তে পারবেন এখানে কিছু প্লাগিন ফ্রী হয় আর কিছু paid

কিন্তু আপনি আপনার ওয়েবসাইটে বেশি প্লাগিন এর ব্যবহার করবেন না এতে আপনার সাইট এর স্পিড এর ওপর প্রভাব পড়ে

 

ওয়ার্ডপ্রেসে আপনি কোন ধরনের ওয়েবসাইট বানাতে পারবেন?

আপনারা বুঝে গিয়েছেন ওয়ার্ডপ্রেস কত powerful tool পাই যখন আপনার মনে প্রশ্ন আসবে যে আপনি আপনার পছন্দমত ওয়েব সাইট এখানে বানাতে পারবেন কিনা তাহলে এর উত্তর হবে হ্যাঁ এখানে নিচে আমি আপনাদের একটি লিস্ট দিয়েছি এখানে আপনি কোন ধরনের ওয়েবসাইট ক্রিয়েট করতে পারবেন এগুলো ছাড়াও আপনি যেকোন ধরনের ওয়েবসাইট বা ব্লগ ওয়ার্ডপ্রেস এর সাহায্যে বানাতে পারবেন

  • Blog
  • New
  • Portfolio
  • Business
  • E-commerce
  • Music
  • Photography

 

ওয়ার্ডপ্রেসে ওয়েবসাইট কিভাবে বানাবো

ওয়ার্ডপ্রেসে ব্লগ বা ওয়েবসাইট বানানোর জন্য আপনাকে কিছু টাকা খরচ করতে হবে যদি আপনি Advanced features এর ব্যবহার করতে চান তাহলে আমি এখানে ফ্রী ব্লগের কথা বলবোনা সর্বপ্রথম আপনাকে একটি ভালো কোম্পানি থেকে ওয়েব হোস্টিং আর Domain কিনতে হবে এর জন্য আপনি Godaddy, Hostgator, A2 Hosting, Bluehost ইত্যাদি এখান থেকে এই জিনিসগুলো কিনে নিতে পারেন

কারণ এগুলো ছাড়া আপনি কাজ করতে পারবেন না এর পরের কথা হলো ওয়ার্ডপ্রেস থিম আর প্লাগিন তাহলে আপনি এখানে বিভিন্ন ধরনের ফ্রী থিম আর প্লাগিন পেয়ে যাবেন যদি আপনার বাজেট কম থাকে তাহলে শুরুতে এগুলো নেওয়ার কোনো প্রয়োজন নেই আপনি ফ্রি থিম আর প্লাগিন এর ব্যবহার করতে পারেন

 

ওয়ার্ডপ্রেস কি আপনার জন্য সঠিক

যদি আপনি এমন কোন প্ল্যাটফর্ম চান যেটি সহজ হয় আর যেটিকে আপনি আপনার মত করে ম্যানেজ করতে পারবেন তাও আবার কোন কোডিং ছাড়াই তাহলে ওয়ার্ডপ্রেস আপনার জন্য একদম সঠিক হবে এখানে আপনি হাজার থিম, প্লাগিন পেয়ে যাবেন যার সাহায্যে আপনি আপনার ওয়েবসাইটের ডিজাইন করতে পারবেন ওয়ার্ডপ্রেস সম্পূর্ণ ফ্রী তাই এর জন্য আপনাকে কোন টাকা দিতে হবে না আর এটি সময়ের সাথে সাথে আপডেট হতে থাকে

এর সাথে আপনার ওয়েবসাইটকে হ্যাকারদের হাত থেকে বাঁচাতে সহজ হয় এমন অনেক প্লাগিন আছে যেগুলো আপনার ব্লগকে secure আর spamming থেকে বাঁচিয়ে রাখে যদি আপনি ব্লগিং কে একটি বিজনেস এর মত করতে চান তাহলে ওয়ার্ডপ্রেস এর থেকে আর কোনো ভালো প্লাটফর্ম নেই তাহলে আপনারা পরিষ্কার ভাবে বুঝে গিয়েছেন যে ওয়ার্ডপ্রেস কি

আজকে আমরা জানলাম ওয়ার্ডপ্রেস কি আর ওয়ার্ডপ্রেসে ব্লগ বা ওয়েবসাইট বানানোর কি কি সুবিধা রয়েছে যদি আপনাদের এই পোষ্টের সম্বন্ধিত কোন ধরনের মন্তব্য থেকে থাকে তাহলে আপনারা নিচে দেওয়া কমেন্ট বক্স এর মাধ্যমে কমেন্ট করে জানাতে পারেন আমি আপনাদের মন্তব্যের উত্তর দেওয়া যথাযথ চেষ্টা করব

আশা করি আজকের এই আর্টিকেলটি পড়ার পর আপনারা সম্পূর্ণভাবে সন্তুষ্ট হয়েছেন এবং এই আর্টিকেলটি আপনাদের ভালো লেগেছে যদি ভালো লেগে থাকে তাহলে এই আর্টিকেলটি কে আপনাদের সোশ্যাল মিডিয়াতে অবশ্যই শেয়ার করবেন ধন্যবাদ

Leave a Comment